দিল্লির JNU ছাত্রী তথা অধ্যাপকদের ওপর হামলার প্রতিবাদে হরিনঘাটা তৃণমূল ছাত্র পরিষদের ধিক্কার মিছিল

12

নিউজসুপার :- গতকাল JNU বিশ্ববিদ্যালয়ে গার্লস হস্টেলে ঢুকে হামলার প্রতিবাদে সপ্তমে সুর চড়িয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
এহেন একটি ঐতিহ্যবাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে বর্বর হামলায় তীব্র ধিক্কার মিছিলে পথে তৃণমূল সহ বাম কংগ্রেস জোট প্রত্যেকেই ।
হরিণঘাটা শহর অন্তর্গত মোহনপুরে তৃণমূল ছাত্র পরিষদের পক্ষ থেকে দিল্লিতে ঘটে যাওয়া জহরলাল নেহেরু ইউনিভার্সিটিতে যে হামলা হয়েছে তার প্রতিবাদে ধিক্কার ও প্রতিবাদ মিছিল। মিছিলটি শুরু হয় হরিণঘাটা শহর তৃণমূল ছাত্র পরিষদের কার্যালয়ের সামনে থেকে ও শেষ হয় মোহনপুর বাজারে গিয়ে। মিছিলটির নেতৃত্ব দেন পশ্চিমবঙ্গ তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সম্পাদক রাকেশ পাড়ুই। তিনি জানান “বর্তমানে দেশের বুকে ছাত্র-ছাত্রী ও শিক্ষাঙ্গনকে রক্তাক্ত করার খেলা খেলছে কেন্দ্রীয় সরকার। তাদের কাছে ছাত্র সমাজ বা শিক্ষার মূল্য নেই, আগামী প্রজন্মকে ধ্বংসের চেষ্টা করছে নরেন্দ্র মোদি সরকার। কেন্দ্রীয় সরকারের জোর করে চাপিয়ে দেয়া নীতির বিরুদ্ধে আওয়াজ তুললে ছাত্র সমাজের মুখ বন্ধ করে দেয়ার জন্য ABVP ও RSS এর দুষ্কৃতীদের নামিয়ে দিচ্ছে বিজেপি। আমরা ধিক্কার জানাই এই ধরনের নরকীয় রাজনৈতিক নেতাদের”। এই মিছিলে অংশগ্রহণ করেছিল বিসিকেভি টি.এম.সি.পি. ইউনিট, ভেটেরিনারি টি.এম.সি.পি ইউনিট, ফার্মেসি টি.এম.সি.পি ইউনিট, ডেয়ারী টেকনোলজি টি.এম.সি.পি ইউনিট, সহ হরিণঘাটা শহর তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সকল নেতৃত্ব কর্মীবৃন্দ। আরো জানায় “কেন্দ্রীয় সরকার যতবার ছাত্র সমাজকে আঘাত করবে, তৃণমূল ছাত্র পরিষদ ততোবারই গর্জে উঠবে”।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

eighteen + six =