টাকা দিলে তবেই মিলবে ছাড়া, মালয়েশিয়ায় গিয়ে ভয়ঙ্কর বিপদে রাজ্যের ৩২ শ্রমিক

10

নিজস্ব প্রতিবেদন: বিপুল বেতনের আশায় বিদেশে কাজ করতে গিয়ে ভয়ঙ্কর বিপদে রাজ্যের ৩২ শ্রমিক। প্রতিশ্রুতি মতো বেতন তো দূরের কথা মালয়েশিয়ায় আটকে রেখে এখন তাদের বেগার খাটানো হচ্ছে। এখন বিদেশ থেকে বাড়ি ফেরার কাতর আবেদন করছেন তাঁরা।গত ৯ সেপ্টেম্বর মালয়েশিয়ায় পাড়ি দেন এ রাজ্যের ৩২ জন শ্রমিক। স্কাই মাস্টার নামে এক নির্মাণ কোম্পানির হয়ে তাঁরা সেখানে যান। বলা হয় মাসে ৫০ হাজার টাকা বেতন দেওয়া হবে। কিন্তু মালয়েশিয়ায় বিমানবন্দরে নেমেই তাঁরা বুঝতে পেরে যান যে তাঁরা ফেঁসে গিয়েছেন।যে কাজ করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে তাদের সেখানে নিয়ে যাওয়া হয় তা তাদের দেওয়া হয়নি। পাশাপাশি তাদের বেগার খাটানো শুরু হয়। শ্রমিকদের অভিযোগ কোনও পারিশ্রমিকও তারা পাচ্ছেন না। এদিকে ভারতে তাদের এজেন্টকে ফোন করলে তিনি বলেন, টাকা দিলে ছেড়ে দেওয়া হবে।

উত্তর ২৪ পরগনার গোপালনগরের একটি কোম্পানি ওইসব শ্রমিকদের মালয়েশিয়ায় নিয়ে যায়। খোঁজ নিয়ে দেখা যাচ্ছে স্কাই মাস্টার নামে যে কোম্পানির কথা বলা হচ্ছে তা আসলে ভুয়ো। ৩২ জন শ্রমিককে নিয়োগ করে ম্যান পাওয়ার কনসাল্টেন্সি নামে একটি কেম্পানি। কোম্পানির মালিক কবীর হোসেন মন্ডল। তারও কোনও হদিশ নেই।

এক শ্রমিকের পরিবারের তরফে জানানো হয়েছে, ওরা মালয়েশিয়ায় বসে কান্নাকাটি করছে। যেসব কাজ দেওয়া হয়েছে তা অত্যন্ত ভারী কাজ।

এদিকে এই ঘটনায় হস্তক্ষেপ করেছেন খোদ বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ। ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে কবীরের শ্যালক সরিফুল হোসেন মোল্লাকে গ্রেফতার করেছে বিধাননগর কমিশনারেট।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

18 − one =